jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংবাদ শিরোনাম :



নারীর স্বেচ্ছা গর্ভপাত সাংবিধানিক স্বীকৃতি পাচ্ছে ফ্রান্সে

ডেস্ক রিপোর্ট :: নারীদের স্বেচ্ছা গর্ভপাতের অধিকারকে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে রেনেসাঁ বিপ্লবের দেশ ফ্রান্স। সকল আইনি বাধা পেরিয়ে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর অন্যতম প্রতিশ্রুতি হিসেবে গতকাল বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দেশটির সিনেটে এ সংক্রান্ত বিল পাশ হয়।

এখন শুধু আনুষ্ঠানিকতার অপেক্ষা। আগামী সোমবার প্যালেস অব ভার্সাইতে সিনেট ও পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে বিলটি চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে।

 

মার্কিন বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েট প্রেস এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের জানুয়ারিতে দেশটির নিম্নকক্ষে এই বিল প্রাথমিকভাবে অনুমোদিত হয়। এরপর বুধবার সিনেটে ভোটাভুটিতে পক্ষে ২৬৭ ও বিপক্ষে ৫০ ভোট পড়েছে। আগামী সপ্তাহে বিলটি আবারও দেশটির আইনসভায় পাঠানো হবে। বিলটি আইনে পরিণত করতে সেখানে তিন-পঞ্চমাংশ ভোটের প্রয়োজন হবে, যা অনায়াসেই মিলবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সিনেটে ভোটের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) মাখোঁ লিখেছেন, তাঁর সরকার নারীদের স্বেচ্ছা গর্ভপাতের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ। এটিকে আইনি রূপ দিতে সংবিধানের অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

সোমবার সর্বশেষ ভোটাভুটির জন্য আইনসভায় যৌথ অধিবেশনের আহ্বান করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন মাখোঁ।

ফ্রান্সের সংবিধানের ৩৪ নম্বর ধারা সংশোধন করে নারীদের গর্ভপাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চায় মাখোঁর সরকার।

দেশটির আইনমন্ত্রী এরিক ডুপুন্ড মোরেটি এই বিলকে নারী অধিকার নিশ্চিতে এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

ফ্রান্সের আইনসভার কোনো বিরোধী দলই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করেনি, যেখানে ১৯৭৫ সালে দেশটিতে গর্ভপাতের বৈধতা দেওয়া হয়ছিল।

সম্প্রতি গর্ভপাত আইন পাস করতে গিয়ে মধ্য ইউরোপের দেশ পোল্যান্ড সরকার ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়ে। এরপর দেশটির সাংবিধানিক আদালত ২০২০ সালে নারীদের স্বেচ্ছায় গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ করা হয়। এমনকি গর্ভে ডাউন সিনড্রোমসহ বিকৃত ভ্রূণের ক্ষেত্রেও এই আইন কার্যকর করার বিধার রাখা হয়েছে।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ